মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করার জনপ্রিয় সব মাধ্যম – 2022

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয়

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয়ঃ বর্তমান প্রজন্মের কাছে মোবাইল অতি পরিচিত একটি জিনিস এর মধ্যে একটি। স্মার্টফোন ব্যাবহার করে না এমন মানুষ হয়তো খুজলেও পাওয়া যাবে কিনা সন্দেহ রয়েছে৷ মোবাইলে আমরা ঘন্টার পর ঘন্টা সময় ফেসবুকিং কিংবা কোনো সোশ্যাল নেটওয়ার্ক ব্যাবহার করে ভিডিও দেখে পার করে দেই।

এর ফলে একদিকে যেমন আমাদের সময়ের অপচয় ঘটছে অন্যদিকে আমাদের ডাটা বা ইন্টারনেট এর অপচয় ও বৃদ্ধি পাচ্ছে।মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করতে অনেকে চান তবে সঠিক উপায় সম্পর্কে না জানার ফলে অনেকেই বিভিন্ন টাকা ইনকাম করার এপ এ কাজ করে পেমেন্ট পান না। মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে হলে আপনাকে সঠিক ভাবে সকল কিছু জানতে হবে।

আজকের আর্টিকেলে আমরা, মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করার উপায় গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো৷ আজকের পোষ্টে জানতে পারবেন, মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট ২০২২মোবাইল দিয়ে আয় করে বিকাশে টাকা, প্রতিদিন ১০০ টাকা আয়, মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করুন 2022, গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2022,  ও সকল বিষয় গুলো সব থাকছে একটি আর্টিকেলে। আপনি যদি মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার ভালো মানের কোনো পোষ্ট না খুজে পান তাহলে আর্টিকেল টি সম্পুর্ন পড়তে পারেন।

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয়

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার অনেক উপায় রয়েছে। বিশেষ করে, অনলাইনে ছোটো ছোটো কাজ করে দেয়ার জন্য একটা মোবাইল ফোন যথেষ্ট ভাবে কাজ করে থাকে। অনলাইন সেক্টর গুলোতে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করতে হলে আপনাকে বুঝতে হবে আপনাকে কিছু না কিছু জানতে হবে। আপনি কোনো কিছু না জেনেই হুট করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। অনলাইন বা অফলাইন দুটো ক্ষেত্রেই কষ্ট করে টাকা ইনকাম করতে হয়৷

বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ বিভিন্ন মোবাইল এপের মধ্যে কাজ করে। কিন্তু বেশিরভাগ ইনকাম করার এপ গুলো বাহিরের দেশে হওয়ায় পড়তে পেমেন্ট জনিত নানান জটিলতায়। তবে আপনি একটু চেষ্টা করলেই মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করতে পারবেন। মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার ২ টি জনপ্রিয় মাধ্যম নিচে দিয়ে দিলাম-

১- আর্টিকেল রাইটিং

আমরা মোবাইলে অধিকাংশ সময়ে বিভিন্ন ধরনের মানুষের সাথে প্রতিনিয়ত চ্যাট এর মাধ্যমে অনেক মোবাইল টাইপ এর দক্ষতায় অধিক পরিমানে এগিয়ে। এমন অনেকেই আছেন যারা কম্পিউটারে যত টা না দ্রুত টাইপ করতে পারে তার চেয়ে মোবাইলে বেশী টাইপ করতে পারে। কনটেন্ট রাইটিং এর জন্য যদি আপনার প্রচেষ্টা প্রবল থাকে তাহলে একটি মোবাইল ফোন আপনার জন্য যথেষ্ট ভুমিকা পালন করবে।

ইংরেজি ভাষা বা বাংলা ভাষায় যদি সুন্দর করে একটি এসএইও ফ্রেন্ডলি পোষ্ট আপনি লিখতে জানেন আপনি প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন মোবাইল দিয়ে। আপনি বর্তমানে যে লেখাটি পড়ছেন এটিও একটি আর্টিকেল। কোথায় আপনার আর্টিকেল দিয়ে ইনকাম করবেন? আর্টিকেল লিখে আয় করার জন্য বিভিন্ন মার্কেট প্লেস গুলোতে আপনার স্যাম্পল গুলো বায়ার দের দেখাতে হবে।

পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়ার সহজ উপায় গুলো জেনে নিন

যেহেতু আপনি মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করবেন তাই ফাইবার, আপওয়ার্ক এর মতন মার্কেটপ্লেস গুলোতে আপনি ভালোভাবে কাজ করতে পারবেন না। আর্টিকেল লিখে আয় করার জন্য বাংলাদেশে প্রচুর পরিমানে ওয়েবসাইট রয়েছে। যেখানে রেগুলার আপনি কাজ করে টাকা আয় করতে পারেন। কমপক্ষে প্রতিদিন ১০০ টাকা আয় করতে পারবেন।

অধিক পরিমানে বায়ার পেতে বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ রয়েছে “কনটেন্ট রাইটিং বাংলাদেশ” নামে। সে সকল গ্রুপ গুলোতে যুক্ত হলে প্রচুর পরিমানে লোক পেয়ে যাবেন আপনার কনটেন্ট বিক্রি করার জন্য। আর বাংলাদেশের পেমেন্ট মাধ্যম হিসেবে প্রতিটি কন্টেন্ট এর মূল্য আপনি বিকাশে নিয়ে নিতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয়
কন্টেন্ট রাইটার গ্রুপ বাংলাদেশ

উপরের ছবি তে দেয়া গ্রুপ টি তে জয়েন হয়ে বিভিন্ন জব পোষ্ট গুলোতে আপনার লেখার স্যাম্পল গুলোকে পাঠাতে পারেন। আপনার লেখা পছন্দ হলে আপনার থেকে সঠিক মূল্যে কনটেন্ট ক্রয় করবে তারা।

২- অনলাইন বাই/ সেল/ রি-সেল করে আয় করুন

মানুষ যত বেশী আধুনিকতার ছোয়া পেয়েছে তত বেশী পরিমানে অনলাইন নির্ভর হতে শুরু করেছে। এখন আর রেস্টুরেন্টের কিংবা কোনো শপিং মলে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয়ের প্রয়োজন হয় না। অনলাইনের মাধ্যমে সেটা সহজেই বাছাই করে অল্প সময়ের মধ্যে ডেলিভারি নেয়া যায় বাসায় ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে।

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া – 2022

অনলাইনের মাধ্যমে কোনো পণ্যের প্রচারণা বা বিক্রি করে মোবাইল এর মাধ্যমে ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করা সম্ভব। বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট গুলোকে মার্কেটিং করার জন্য সোশ্যাল প্লাটফর্ম গুলোতে দক্ষ মার্কেটার দের দিয়ে কাজ করিয়ে নেয়। আপনার কাজ হলো তাদের পণ্যের সেলস বা বিক্রি বৃদ্ধি করা। এ কাজ গুলো আপনি মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই সম্পন্ন করে নিতে পারবেন।

এ ছাড়াও আপনার যদি মোটামুটি পরিমান টাকা ইনভেস্ট করার মত থাকে নিজেই সেল বিজনেস করতে পারেন। সাধারণ একটা টপিক এর উদাহরণ দেই- আপনি গুলিস্তান থেকে ৩০ টাকা দরে ৫০ টি ইয়ারফোন কিনুন। এগুলো অনলাইনে ৫০ টাকা দামে বিক্রি করে দিন। অনেক ক্রেতা পেয়ে যাবেন আপনি কারন এই ৩০ টাকার ইয়ারফোন গুলোই লোকাল দোকান গুলোতে ৮০/৯০ টাকা করে বিক্রি হয়৷ মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করার জন্য এ পদ্ধতি ব্যাবহার করতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট ২০২২

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় এর মধ্যে অনেক গুলো উপায় গুলোর মধ্যে মাইক্রো জব সাইট গুলোকে প্রধান্য বেশী পরিমানে দেয়া হয়। অনেকেই হয়ত মাইক্রো জব সাইটে কাজ করে টুকটাক আয়ের একটি পন্থা বানাতে পেরেছেন। অধিকাংশ মানুষ এই মাইক্রো জব সাইট সম্পর্কে জানেনা।

মাইক্রো জব সাইট কি

মূলত মাইক্রো শব্দের অর্থ হচ্ছে ছোট। আর জব শব্দের অর্থ হলো চাকরি৷ অনলাইনে ছোট ছোট কাজ সম্পাদন করে যে সাইট গুলো থেকে টাকা আয় করা যায় সেটাই হলো মাইক্রো জব সাইট

এখানে, নানা ধরনের কাজ পাওয়া যায়। যেমন- টিকটক প্রোফাইলে ভিউজ, লাইক, কমেন্টস, শেয়ার, ফলো। ইনস্টগ্রামে ফলো, কমেন্টস। ফেসবুক পেজে লাইক, কমেন্টস, ওয়াচ টাইম। ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইভ ইত্যাদি সাথে রেফার করলে অতিরিক্ত বোনাস টাকা ইনকাম করা যায়।

মাইক্রো জবের জন্য হাজারো ওয়েবসাইট রয়েছে তবে আজ আমি আপনাদের দেখাবো বাংলাদেশী পেমেন্ট সিস্টেম বিকাশ যোগ করা একটি সাইট কে। এখান থেকে সহজেই মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করতে পারবেন।

ইংরেজি ভাষা জনপ্রিয় হওয়ার কারণ জানুন

সাইটের নাম “WorkersEngine” এটি জনপ্রিয় মাইক্রো সাইট গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি সাইট। এ সাইটে প্রতিদিন ৩০ হাজার এর অধিক বিভিন্ন টাস্ক জব প্রকাশিত হয়। এখানে আপনি আনলিমিটেড কাজ করে আয় করতে পারবেন। কাজের জন্য কোনো লিমিট বাধা নেই। টিকটক ফলো, ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব, ফেসবুক পেজ লাইক, ফেসবুক গ্রুপ জয়েন ইত্যাদি কাজ পাবেন। রেফার করতে পারলে তার করা ইনকাম এর ৩০% আপনার একাউন্টে যোগ হয়ে যাবে।

এই সাইটের পেমেন্ট সিস্টেম অত্যান্ত ভালো। বিকাশ, রকেট, মাস্টার কার্ড বা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে আপনাদের ইনকাম করা টাকা টা তুলতে পারবেন। মোবাইল দিয়ে বড় মার্কেটপ্লেসে কাজ না করা গেলেও এসকল ছোট মাইক্রো জব সাইটের প্লেস গুলোতে খুব সহজে করতে পারবেন।

মোবাইল দিয়ে আয় করে বিকাশে টাকা

বর্তমানে প্রায় সকল মানুষের বিনোদন ও যোগাযোগ এর একমাত্র মাধ্যম হিসেবে কাজ করে সোস্যাল মিডিয়া ফেসভবুক, ইন্সটাগ্রাম ও ইউটিউব। সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে কাজ করে আপনিও মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারেন। প্রতিটি বড় বড় পেজের জন্য আলাদা ধরনের কন্ট্রিবিউটর রাখা হয়। পুরো পেজ কে তাড়াই পরিচালনা করে থাকে।

বাংলাদেশের সবচেয়ে কম দামে ল্যাপটপ 2022

আপনি ধরুন কোনো কোম্পানির ফেসবুক পেজে পরিচালনা করার কাজ নিলেন। সেটা আপনি আপনার হাতে থাকা মোবাইল এর মাধ্যমেই সহজে করে নিতে পারবেন। এ অবস্থায় কাজ থাকে শুধু মাত্র সেলার দের কমেন্টস রিপ্লে করা। নতুন নতুন পণ্যের ছবি গুলোর বিবরন লিখে নিয়মিত পোষ্ট দেয়া। কাস্টমার কোনো মেসেজ দিলে সেটার তাৎক্ষনিক রিপ্লাই করা। মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় এর উপায় খুজে থাকলে এটি ভালোভাবে কাজে দিবে আপনাকে।

প্রতিদিন ১০০ টাকা আয়

অনেকেই খুজে থাকেন যে, প্রতিদিন অন্তত ১০০ টাকা কিভাবে মোবাইল দিয়ে আয় করবেন। এ সম্পর্কে বলতে হলে বলা যায় সোশ্যাল প্লাটফর্ম ব্যাবহার করেই করতে পারেন। ইউটিউব এর সাবস্ক্রাইব, ফেসবুক ফলোয়ার বিক্রি করে প্রতিদিন অন্তত ১০০ টাকা আয় করা সম্ভব। মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় এর জন্য এটি অন্যতম উপায় এর মধ্যে পড়ে।

প্রতিদিন ১০০ টাকা আয় কিভাবে করবেন? আপনি ওয়েবসাইট থেকে ক্রয় করে সেটা বিক্রি করবেন। ধরুন, আপনি ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার সেল করবেন। প্রথমে এই ওয়েবসাইট থেকে আপনাকে পরিমান অনুযায়ী সাবস্ক্রাইব ক্রয় করে সেটা আপনার কাস্টমারের চ্যানেলে দিয়ে দিবেন। সেখান থেকে আপনার অনেক পরিমান লাভ আশা করা যায়।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করুন 2022

মোবাইল এর মাধ্যমে আয় করার আরেকটি মাধ্যম হলো গেম টপাপ বিজনেস। বাংলাদেশে ইদানিং গেম খেলার জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ভালো ভালো গেম গুলোর প্লেয়ার ও অনেক বেশী। ফ্রি ফায়ার বা পাবজির মত গেম গুলোতে প্রচুর পরিমানে মানুষ টাকা দিয়ে বিভিন্ন আইটেম ক্রয় করে থাকে।

সবার কাছে মাস্টার কার্ড বা গুগল গিফট কার্ড না থাকার কারনে তাদের যেতে হয় অন্য কোনো মানুষের কাছে। এবং আপনি হয়ে যান সেই মানুষটি। এই কাজ গুলো আপনি মোবাইল এর মাধ্যমেই সম্পন্ন করে ফেলতে পারেন। আপনাত কাছে যদি মাস্টার কার্ড না থাকে তাহলে দারাজ থেকে গুগল গিফট কার্ড এর ডলার ক্রয় করে নিন। এর পরে সেটা গুগল প্লে স্টোরে রিডিম করে নিন।

চীনের বাজারে 1 নম্বর মোবাইল ব্র্যান্ড কোনটি – 2022

এখন আপনি যে কোনো গেমে ডায়মন্ড বা ইউসি বিক্রি করে দিতে পারবেন। এ ব্যাবসা গুলো থেকে অধিক লাভ করা যায় যা আপনি করলেই বুঝতে পারবেন। মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় এর জন্য এটি আপনি করতে পারেন।

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2022

অনেকেই মোবাইল এর মাধ্যমে গেম খেলে সহজেই টাকা আয় করার উপায় গুলোকে খুজে থাকেন। গেম খেলে টাকায় আয় করাটা তুলনামূলক ভাবে সহজ। একদিকে গেম খেলে সময় কাটলো অন্যদিকে ইনকাম হলো। তবে যে সমস্যাটা বেশী দেখা যায়, বেশিরভাগ এপস গুলো বাহিরের দেশের হওয়ায় পেমেন্ট সিস্টেম নিয়ে পড়তে হয় সমস্যায়। আজকে তাই আপনাদের সামনে দেশীয় এপস পরিচয় করিয়ে দিব যা দিয়ে আপনারা গেম খেলে মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করতে পারবেন।

Taka Income- টাকা ইনকাম

বাংলাদেশের ইনকাম করার এপ্স গুলোত মধ্যে এটি অধিক জনপ্রিয় একটি এপ। গুগল প্লে স্টোরে আপনি এপটি পেয়ে যাবেন। এটি প্রায় ৫ লাখ এর বেশীবার ইন্সটল করা হয়েছে। এই এপে আপনি গেম খেলে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয়
টাকা ইনকাম অ্যাপস স্কিনশট

Snake Game, Slap Kings, Car Racing, Cross 21 এই গেম গুলো খেলার মাধ্যমে আপনাকে নির্ধারিত পরিমান টাকা দেয়া হবে। যা দিয়ে আপনি ফ্রি ফায়ার এর ডায়মন্ড, পাবজি ইউসি, বিকাশ, রিচার্জ ও নগদে উইথড্র করে নিতে পারবেন। মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় করার জন্য এটি আপনারা চেষ্টা করতে পারেন।

বর্তমান সময়ের সেরা ২০ টি লাভজনক ব্যাবসা

শেষ কথা

মোবাইল দিয়ে বিকাশে টাকা আয় পোষ্টে আপনাদের মোবাইল দিয়ে অনলাইনে টাকা আয়ের অনেক গুলো মাধ্যম দেখালাম৷ এ ছাড়াও হাজারো মাধ্যমে শুধু প্রচেষ্টার মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা সম্ভব। সে সম্পর্কে আলোচনা করবো পরবর্তী কোনো পোষ্টে।

About admin

In a world where you can have everything. Be a giver first. My hobbies are writing , gaming, and SEO 😊

View all posts by admin →

Leave a Reply

Your email address will not be published.