টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় – টিকটকে ফেমাস হয়ে যান এই উপায় গুলো ফলো করে – 2023

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায়

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায়ঃ টিকটক আমাদের মাঝে অনেক জনপ্রিয় একটি এপ।  বর্তমানে টিকটকের জনপ্রিয়তা অনেক বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে।  সেই সাথে বাড়ছে টিকটকের ইউজার দের সংখ্যাও।  আজকাল টিকটক থেকে ভাইরাল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।  রাতারাতি সেলেব্রিটি হয়ে যাওয়ার সংখ্যাটাও অনেক বেশি। 

টিকটকে খুব অল্প সময়ে ছোট ভিডিও গুলোকে অনেকের মাঝে ছড়িয়ে দেয়া যায়।  ইদানিং মানুষের মাঝে বড় ভিডিওর চেয়ে ছোট ভিডিও গুলোকে বিনোদন এর মাধ্যম হিসেবে পছন্দ করে তুলনামূলক বেশি।  অনেকেই টিকটক করলেও কিভাবে ভাইরাল করতে হবে ভিডিও গুলোকে সে সম্পর্কে ভালোভাবে বুঝেন না।  তাই কিভাবে ভিডিও ভাইরাল করবেন সে সম্পর্কে ইউটিউব বা গুগলে প্রচুর খোজাখুজি করেন।  

টিকটকে ভাইরাল নেগেটিভপজিটিভ দুই ভাবেই হওয়া যায়।  আপনাকে বেছে নিতে হবে আপনি মানুষের কাছে আলোচনায় থাকতে চান নাকি সমালোচনায়।  যাইহোক,  এটা একান্তভাবে আপনার ব্যাক্তিগত বিষয়।  তবে আমরা শেয়ার করব কিভাবে ভিডিও বানালে সেগুলো সহজেই প্রচুর পরিমানে ভিউ আনতে পারবেন। 

প্রিয় বন্ধুগন,  আমাদের আজকের আর্টিকেলের বিষয় বস্তু হলো কিভাবে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করা যায় সে সম্পর্কে।  টিকটকে ভাইরাল হওয়ার উপায়।  কিভাবে টিকটকে ভিডিও তৈরি করলে সহজেই ভাইরাল হওয়া যায় সে সম্পর্কে বিস্তারিত লিখতে চলেছি।

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় – How to Viral Your Tiktok Video

Table of Contents

টিকটকে ফেমাস হওয়ার উপায় বা ভাইরাল হওয়ার চেয়ে অনেক গুলো বিষয় কে প্রধান্য দিয়ে ভিডিও বানাতে হবে।  শুধু আপনি ভিডিও বানালেন,  আপলোড করলেন,  পাবলিশ করলেন এভাবে হবে না।  সব বিষয় গুলোর উপরে আপনার সমান পরিমান নজড় দিয়ে কাজ করতে হবে।  টিকটক ভিডিও ভাইরাল করা উপায় সম্পর্কে নিচে দিয়ে দিলাম- 

আরো পড়ুন-

ফোনের টাকা শেষ? ফ্রি কল যে কোনো নাম্বারে নতুন অ্যাপ দিয়ে – 2023

১- চ্যানেল নিশ তৈরি করা 

আপনি আসলে কোন বিষয় গুলোর উপরে ভিডিও বানাতে চান সেটা বাছাই করে নিতে হবে।  আপনি যদি টিকটকে ডান্স করেন তাহলে আপনার চ্যানেল ক্যাটাগেরি কে ডান্স চ্যানেলে রুপান্তর করতে হবে।  চ্যানেল অনুযায়ী আপনি নির্দিষ্ট একটা টপিকের উপর ভিডিও তৈরি করলে টিকটক এলগরিদম অনেক বেশি গুরুত্ব দেয়।  

২- নিয়মিত ভিডিও আপলোড করা

টিকটকে ভাইরাল হতে হলে আপনাকে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে হবে।  যখন আপনি নিয়মিত ভিডিও আপলোড করবেন তখন ভিডিও গুলো আসতে আসতে রিচ পেতে শুরু করে।  আপনি অনিয়মিত ভাবে ভিডিও আপলোড দিলে আসতে আসতে টিকটক আইডি ডাউন হয়ে যায়।  তখন আপনি সবচেয়ে সেরা কন্টেন্ট আপলোড দিলেও সেটা ভাইরাল হবে না। 

৩- ট্রেন্ডিং টপিক বাছাই করা 

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় এর মধ্যে এটি অন্যতম সেরা একটি উপায়।  টিকটকে ট্রেন্ডিং নামে আলাদা একটি অপশন এই থাকে।  যেখানে ট্রেন্ডিং টপিকে যারা ভিডিও তৈরি করে তাদের ভিডিও গুলো টিকটক নিজেই প্রোমোট করতে শুরু করে।  

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায়
টিকটক ট্রেন্ড চ্যানেল

অনেক সময়ে দেখবেন নির্দিষ্ট গান,  বা যে কোনো কিছু কয়েকদিন খুব ভালো চলে।  তখন আপনাকে সে বিষয়ের উপর ভালো ভাবে ভিডিও বানাতে হবে।  

আরো পড়ুন-

ডিজিটাল মার্কেটিং কি – ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে করে বিস্তারিত

৪- ভিডিও কোয়ালিটি 

আপনার তৈরি ভিডিও গুলোর মান বাড়াতে হবে।  অনেকেই অনেক বেশি মেগাবাইট এর কারনে এইচডি কোয়ালিটির ভিডিও আপলোড করতে চান না।  তবে এটি অনেক বড় একটি ভুল।  টিকটক স্বয়ংক্রিয়ভাবে হাই-কোয়ালিটির ভিডিও গুলো অনেক বেশি রিচ করতে সাহায্য করে।  তাই আপনি যখন ভিডিও বানাবেন সেটা হাই-এইচডি কোয়ালিটিতে এডিট করার চেষ্টা করবেন।  

৫- ভিডিওর সময়-সীমা

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় এর মধ্যে ভিডিও কত সময়ের সেটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।  টিকটক এলগরিদম সেই ভিডিও গুলোকে বেশি প্রধান্য দেয় যেগুলো সর্বোচ্চ বার মানুষ দেখতে চায়।  যেমন – একটি ভিডিও যখন  কেউ স্ক্রল করে ৬-৭ বার পূনরায় দেখে।  তখন সেগুলোকে অনেক বেশি রিচ করায়।  তাই আপনি চেষ্টা করবেন যেন ভিডিও ১৫-২০ সেকেন্ড এর মধ্যে হয়ে থাকে।  এই ভিডিগুলোকে টিকটক সহজেই ভাইরাল করে দেয়। 

আরো পড়ুন-

ফটো এডিট করার ভালো এপ্স কোনটি – Best 5 Photo Editing Apps

৬- ভিডিও অনুযায়ী হ্যাশট্যগ ব্যবহার করা 

হ্যাশট্যাগ গুলো আপনার ভিডিও কি ধরণের সেটা অনুমান করতে সাহায্য করে।  তাই আপনার ভিডিও আসলে কোন ধরণের সে অনুযায়ী বেশি বেশি হ্যাসট্যাগ ব্যবহার করুন।  ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমানে টুলস রয়েছে যেগুলো দিয়ে টিকটক হ্যাসট্যগ খুজে বের করা যায় সহজেই।  

৭- ভিডিও তে ট্রেন্ডিং ইফেক্ট ব্যবহার করা

টিকটকে প্রচুর পরিমানে ইফেক্ট পাওয়া যায়।  এসব ইফেক্ট গুলো ভিডিওতে ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন।  বিশেষ করে,  ট্রেন্ডিং যেসব ইফেক্ট থাকবে সেগুলোকে বেশি প্রধান্য দেয়ার চেষ্টা করবেন।  তাহলে সহজেই ভিডিও গুলো ভালো পরিমান রিচ পাওয়া শুরু করবে। 

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায়
টিকটক ক্যামেরা ইফেক্ট

৮- অন্যদের কমেন্টস দেয়া 

অন্য ইউজার দের ভিডিওতে চেষ্টা করবেন ইউনিক কিছু কমেন্টস করার।  তাহলে ওখানে কমেন্টস করতে আসা লোকের যদি আপনার কমেন্ট ভালো লাগে তাহলে অনেকেই আপনাকে ফলো করে দিবে।  

আরো পড়ুন-

কোন দেশের টাকার মান বেশি – কুয়েতের টাকার মান বেশী কেন 2022

৯- ভিডিওতে কমেন্টস রিপ্লে দেয়া 

আপনার ভিডিও তে যারা কমেন্টস করবে। তাদের কে যথাযথ ভাবে রিপ্লে করার চেষ্টা করবেন।  এতে আপনাকে যে কমেন্টস করবে তার মনে ও আনন্দ পাবে।  পরবর্তী তে আপনি যখনি ভিডিও আপলোড করবেন সে আবার কমেন্টস করে দিবে। 

১০- ভিডিও ডিলিট বা ড্রাফট না করা

অনেক ক্ষেত্রেই যদি পুরাতন ভিডিও গুলো ডিলিট করে দেন তাহলে আইডির রিচ অনেক কমে যায়।  ভিডিও ড্রাফট করে রাখলেও একই অবস্থার সম্মুখীন হতে হয়।  টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় এর মধ্যে সবসময় ভিডিও পাবলিশ এর পরে সেটাকে ড্রাফট বা ডিলিট করা থেকে বিরত থাকতে হবে৷  

১১- নিজের সাউন্ড ব্যবহার করা 

যখন আপনি কোনো মিউজিক এর উপর ভিডিও করবেন সেটা আপনি আপলোড করার চেষ্টা করবেন।  তাহলে আপনার আপলোড করা মিউজিকে যত মানুষ ভিডিও তৈরি করবে বা দেখবে তারা সকলেই মিউজিক এর কারনে আপনার আইডি পেয়ে যাবে।  এতে আপনার টিকটক আইডির রিচ অনেকাংশে বেড়ে যাবে। 

১২- ভিডিও তে থাম্বেইল ব্যবহার করা 

ভিডিও টি চালু করার পূর্বে সেটি কেমন দেখাবে অন্যের কাছে সেটার জন্য ভালো একটি কভার ফটো বাছাই করে নিতে হবে।  টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় এর মধ্যে এটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।  

আরো পড়ুন-

অনলাইন থেকে আয় করার ৫ টি উপায় – বিস্তারিত জানুন 2022

টিকটক ভিডিও ভাইরাল হয় না কেন

টিকটক ভিডিও ভাইরাল না হওয়ার অনেক কারন রয়েছে৷  আমরা উপরে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার ১২ টি টিপস দিয়েছি। দেখুন ভালো করে এখান থেকে কোন কোন কাজটি আপনার করা হয়নি।  সে কাজ গুলো ভালোভাবে করার চেষ্টা করতে হবে।  

বিশেষ করে,  আপনার কন্টেন্ট এর উপর বেশি ফোকাস দিতে হবে।  আপনার কন্টেন্ট যদি ভালো হয় তাহলে আজ বা কাল ভাইরাল হবেই।  তবে বাজে কনটেন্ট আপলোড করার জন্য টিকটক ভালো খ্যাতি অর্জন করেছে।  তবে ভালো কনটেন্ট পরিমান ও কিন্তু কম নয়।  আপনি যে সব বিষয় গুলোতে দক্ষ রয়েছেন সেগুলার উপরে ভালো মানের ভিডিও আপলোড করতে থাকুন।  পাশাপাশি আমাদের উপরে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার ১২ টি নিয়ম কে কাজে লাগান। 

টিকটক ফেমাস হওয়ার উপায়

বর্তমানে ফেমাস হওয়ার শর্টকাট ও সহজ মাধ্যম হলো টিকটক।  মুহুর্তেই আপনি ফেমাস হয়ে যেতে পারবেন।  মানুষ নেগেটিভ বিষয় গুলো বেশি পছন্দ করে।  যখন আপনার ভিডিও কোনো রোষ্টিং চ্যানেল রোষ্ট করা শুরু করবে দেখবেন আপনা-আপনি আপনি ফেমাস হয়ে যাচ্ছেন৷  

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায়
টিকটকে ফেমাস হওয়ার উপায়

তবে আপনি ফেমাস হয়ে কি করবেন?  যদি মানুষের কাছে সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে যান। তাই চেষ্টা করবেন ভালো কিছু করার টিকটকে।  এমন কিছু ইউনিক করার যা পূর্বে কেউ করেনি।  তাহলে দেখবেন আপনি ফেমাস হয়ে উঠবেন।  

আরো পড়ুন-

পাসপোর্ট করার নিয়ম – সহজেই পাসপোর্ট আবেদন শিখে নিন নিজেই

মানুষ এই আধুনিক যুগে হাসতে ভালোবাসে।  মানুষ কে আনন্দ দেয়া যায় এমন ভিডিও গুলো আপনি বানাতে পারলে ফেমাস হয়ে উঠবেন।  তবে,  সস্তা কনটেন্ট দিয়ে ফেমাস হতে পারবেন না উলটো সমালোচনা পাবেন।  মানুষ কে আনন্দ দিলেও নিজের সম্মান টা ধরে রাখবেন।  যেমন ধরুন, মিস্টার বিন ও মানুষ কে হাসিয়েছে।  কিন্তু তাকে নিয়ে কেউ সমালোচনা করার সাহস ও রাখেনা।  

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন

টিকটক ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার এর নাম কি?

আপনি টিকটক এর অফিসিয়াল এপ দিয়েই টিকটক বানাতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি অন্য এপ থেকে বানাতে চান তাহলে কাইনমাস্টার, ক্যাপকাউট, ইনশঅট এসব দিয়ে ভালো ভাবে ভিডিও বানাতে পারবেন।

কিভাবে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করবো?

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার অনেক গুলো উপায় রয়েছে। ভিডিও কোয়ালিটি, টপিক বাছাই, হ্যাশট্যাগ ইত্যাদির সঠিক ব্যাবহার করতে পারলে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করা যাবে।

টিকটক লেখা ভিডিও কিভাবে বানাবো?

টিকটকে লেখা ভিডিও বানাতে হলে আপনাকে ক্যাপকাট ও পিক্সেল ল্যাব সফটওয়্যার ২ টি ব্যবহার করতে হবে।

আমাদের শেষ কথা 

টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় – পোষ্টে সব কিছু শেয়ার করে দিলাম। এসব নিয়ম গুলো মেনে যদি প্রতিদিন ভিডিও আপলোড করতে পারেন তাহলে আপনি অল্পদিনেই ভাইরাল ও ফেমাস হতে পারবেন টিকটকে।  যদি আমাদের আর্টিকেল আপনার ভালো লাগে তাহলে যুক্ত হতে পারবন আমাদের ফেসবুক পেজGoogle News এ।

About admin

In a world where you can have everything. Be a giver first. My hobbies are writing , gaming, and SEO 😊

View all posts by admin →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *